শিরোনাম:
নবীনগরে শিল্পপতি রিপন মুন্সির স্বপ্নের ফার্মে ঘুরে দাঁড়ালো ৫০০ অসহায় পরিবার নবীনগরে বিএনপির অপপ্রচার ও সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে সম্পৃতি সমাবেশ অনুষ্ঠিত। নবীনগরে ব্যারিষ্টার জাকির আহাম্মদ কলেজে জিপিএ-৫ প্রাপ্তদের সংবর্ধনা ও পিঠা উৎসব অনুষ্ঠিত। বাংলাদেশি শিক্ষার্থীকে বৃত্তি দেবে রাশিয়া বিয়ের পরদিন মেঘনায় ভাসছিল যুবকের মরদেহ প্রেমের টানে এবার জয়পুরহাটে শ্রীলঙ্কান যুবক ইডেনের বহিষ্কৃত ছাত্রলীগ নেত্রীরা কৃষিমন্ত্রীর বাসায় এবার গোপনে নয়, আয়োজন করে বিয়ে করবেন শাকিব ৩ স্ত্রী থাকার পরও কিশোরীকে বিয়ের প্রস্তাব, রাজি না হওয়ায় অপহরণ ইভ্যালির সার্ভার খুলছে শিগগিরই, অনলাইনে চালু হবে কেনাবেচা
শনিবার, ২৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১২:৪০ অপরাহ্ন

স্ত্রীকে হত্যার দায়ে স্বামীর যাবজ্জীবন

প্রতিনিধির / ১০৬ বার
আপডেট : রবিবার, ২১ আগস্ট, ২০২২
সুনামগঞ্জে স্ত্রীকে হত্যার দায়ে স্বামীর যাবজ্জীবন
সুনামগঞ্জে স্ত্রীকে হত্যার দায়ে স্বামীর যাবজ্জীবন

সুনামগঞ্জে যৌতুকের টাকার জন্য স্ত্রীকে হত্যা মামলায় ১৯ বছর পর স্বামী আব্দুল্লাহকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন অতিরিক্ত দায়রা জজ আদালত।

রোববার (২১ আগস্ট) দুপুরে অতিরিক্ত দায়রা জজ আদালতের বিচারক মহিউদ্দিন মুরাদ আসামির অনুপস্থিতিতে এ রায় দেন। আদালত সূত্রে জানা যায়, বিগত ২০০৩ সালের ৭ আগস্ট দক্ষিণ সুনামগঞ্জ উপজেলার (বর্তমান শান্তিগঞ্জ) জয়কলস গ্রামে আব্দুল্লাহর সঙ্গে শেফালীর বিয়ে হয়। আর্থিক অভাব অনটনের কারণে তাদের সংসারে প্রায়ই ঝগড়া হত। ঘটনার প্রায় ২ মাস আগে আব্দুল্লাহ সৌদি আরব যাওয়ার জন্য শেফালীর কাছে এক লাখ টাকা যৌতুক দাবি করেন। টাকা দিতে অপারগতা প্রকাশ করলে শেফালীকে ২০০৩ সালে ২৭ অক্টোবর শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন করে আব্দুল্লাহ। ওই দিন শেফালীকে বাড়ির পেছনে একটি আম গাছে ঝুলিয়ে হত্যা করে। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে মরদেহ উদ্ধার করে এবং আলামত জব্দ করে। হত্যার পর শেফালীর শরীরের বিভিন্নস্থানে জখম ছিল।

এ ঘটনায় শেফালীর মা মালেকা বেগম বাদী হয়ে থানায় মামলা দায়ের করেন। পরে আব্দুল্লাহ তার বাবা খাসিদ আলী ও মা সৈয়দুন্নেছার বিরুদ্ধে ২০০৪ সালে অভিযোগপত্র দাখিল করা হয়। মামলার দীর্ঘ বিচারকার্য শেষে আদালত হত্যাকারী আব্দুল্লাহকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেন। অপর আসামিদের খালাস দেওয়া হয়।

Facebook Comments Box


এ জাতীয় আরো সংবাদ

Recent Comments

No comments to show.