fbpx
শিরোনাম:
নবীনগরে শিল্পপতি রিপন মুন্সির স্বপ্নের ফার্মে ঘুরে দাঁড়ালো ৫০০ অসহায় পরিবার নবীনগরে বিএনপির অপপ্রচার ও সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে সম্পৃতি সমাবেশ অনুষ্ঠিত। নবীনগরে ব্যারিষ্টার জাকির আহাম্মদ কলেজে জিপিএ-৫ প্রাপ্তদের সংবর্ধনা ও পিঠা উৎসব অনুষ্ঠিত। বাংলাদেশি শিক্ষার্থীকে বৃত্তি দেবে রাশিয়া বিয়ের পরদিন মেঘনায় ভাসছিল যুবকের মরদেহ প্রেমের টানে এবার জয়পুরহাটে শ্রীলঙ্কান যুবক ইডেনের বহিষ্কৃত ছাত্রলীগ নেত্রীরা কৃষিমন্ত্রীর বাসায় এবার গোপনে নয়, আয়োজন করে বিয়ে করবেন শাকিব ৩ স্ত্রী থাকার পরও কিশোরীকে বিয়ের প্রস্তাব, রাজি না হওয়ায় অপহরণ ইভ্যালির সার্ভার খুলছে শিগগিরই, অনলাইনে চালু হবে কেনাবেচা
বৃহস্পতিবার, ২৫ জুলাই ২০২৪, ০৭:১৪ অপরাহ্ন

মারধর করলে মেডিকেল সার্টিফিকেট বা জখম কোথায়: আল আমিন

প্রতিনিধির / ৩১৬ বার
আপডেট : বৃহস্পতিবার, ৮ সেপ্টেম্বর, ২০২২
মারধর করলে মেডিকেল সার্টিফিকেট বা জখম কোথায়: আল আমিন
মারধর করলে মেডিকেল সার্টিফিকেট বা জখম কোথায়: আল আমিন

জাতীয় দলের পেসার আল আমিনের বিরুদ্ধে স্ত্রীর দায়ের করা মামলা ও অভিযোগের বিষয়টি একটি সুপরিকল্পিত ষড়যন্ত্র বলে দাবি করেছেন এই ক্রিকেটার। বুধবার রাতে এক সংবাদ সম্মেলনে এই দাবি করেন তিনি।

গত বৃহস্পতিবার (১ সেপ্টেম্বর) আল আমিনের বিরুদ্ধে যৌতুকের দাবিতে শারীরিক নির্যাতনের অভিযোগে মামলা দায়ের করেন তার স্ত্রী ইসরাত জাহান। তার দাবি, স্ত্রীর কাছে ২০ লাখ টাকা দাবি করেছেন এ ক্রিকেটার। সেই টাকা দিতে রাজি না হওয়ায় দীর্ঘ সময় ধরেই শারীরিক ও মানসিক নির্যাতনের শিকার হতে হয়েছে তাকে।

বিষয়টিকে নিজের ক্রিকেট ক্যারিয়ার ক্ষতিগ্রস্থ করতে সুপরিকল্পিত ষড়যন্ত্র বলে দাবি করে আল আমিন বলেন, আমার স্ত্রী দাবি করেছেন তাকে দুই বছর ধরে নির্যাতন করা হচ্ছে। যদি তাই হয়ে থাকে, তাহলে নির্যাতনের প্রমাণ কি? মারধর করলে জখম থাকতো, সেক্ষেত্রে মেডিকেল থেকে চিকিৎসা গ্রহণের সার্টিফিকেট থাকতো। তেমন কোনো সার্টিফিকেটই তো মামলার জন্য সে দেখাতে পারেনি।

এসময় গণমাধ্যমকে উদ্দেশ্য করে তিনি বলেন, সে দাবি করেছে আমি তাকে প্রতিদিন পিটাই। তাহলে তার কাছে মারধরের জখমের চিহ্ন দেখতে চান। কোনো মহিলা ডাক্তার বা মহিলা পুলিশ চাইলেই সেই প্রমাণ দেখতে পারতো। এছাড়া আমার বাড়িতে সিসিটিভি ক্যামেরা রয়েছে, প্রয়োজনে সেটি দেখুন তাকে মারধর করা হয়েছে কি-না। তাই আমি বলতে চাই এটি একটি সুপরিকল্পিত ষড়যন্ত্র।

এসময় এক মেয়ের সঙ্গে নিজের ছবি ছড়িয়ে পড়ার বিষয়ে এই পেসার বলেন, যদি দ্বিতীয় বিয়ে করতাম তাহলে সেটার কাবিননামা থাকতো, সেই কাবিননামা কোথায়? একটা ছবি ভাইরাল হয়েছে, তার আগে জেনে নেওয়া দরকার ছিল সে আমার রিলেটিভ কিনা। আমার কোনো কাজিন কিনা। না জেনেই ভাইরাল করে দিলেন। আমি তো সেলিব্রেটি, ছবি তুলতেই পারে। কিন্তু সেই ছবি দিয়ে বলে দেওয়া হলো আমি নাকি দ্বিতীয় বিয়ে করেছি। এখন ওই মেয়েরও তো বিয়ে করতে হবে। তার বিষয়টা ভাবলেন না। এখন এর দায়ও তো আমার উপরে এসে পড়ছে।

Facebook Comments Box


এ জাতীয় আরো সংবাদ

Recent Comments

No comments to show.