শিরোনাম:
নবীনগরে শিল্পপতি রিপন মুন্সির স্বপ্নের ফার্মে ঘুরে দাঁড়ালো ৫০০ অসহায় পরিবার নবীনগরে বিএনপির অপপ্রচার ও সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে সম্পৃতি সমাবেশ অনুষ্ঠিত। নবীনগরে ব্যারিষ্টার জাকির আহাম্মদ কলেজে জিপিএ-৫ প্রাপ্তদের সংবর্ধনা ও পিঠা উৎসব অনুষ্ঠিত। বাংলাদেশি শিক্ষার্থীকে বৃত্তি দেবে রাশিয়া বিয়ের পরদিন মেঘনায় ভাসছিল যুবকের মরদেহ প্রেমের টানে এবার জয়পুরহাটে শ্রীলঙ্কান যুবক ইডেনের বহিষ্কৃত ছাত্রলীগ নেত্রীরা কৃষিমন্ত্রীর বাসায় এবার গোপনে নয়, আয়োজন করে বিয়ে করবেন শাকিব ৩ স্ত্রী থাকার পরও কিশোরীকে বিয়ের প্রস্তাব, রাজি না হওয়ায় অপহরণ ইভ্যালির সার্ভার খুলছে শিগগিরই, অনলাইনে চালু হবে কেনাবেচা
রবিবার, ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০২:০৫ পূর্বাহ্ন

তিন প্রেমিক মিলে প্রতারণা’র প্রতিশোধ নিতে ইভাকে খুন করে

প্রতিনিধির / ১৩৪ বার
আপডেট : বৃহস্পতিবার, ১৮ আগস্ট, ২০২২
প্রতারণা’র প্রতিশোধ নিতে ইভাকে খুন করে তিন প্রেমিক
প্রতারণা’র প্রতিশোধ নিতে ইভাকে খুন করে তিন প্রেমিক

রংপুরের কাউনিয়ায় স্কুলছাত্রী সানজিদা আক্তার ইভার (১৬) হত্যা-রহস্য উদঘাটনের দাবি করেছে পুলিশ। প্রতারিত হওয়ার ক্ষোভ থেকে তিন প্রেমিক মিলে এই হত্যাকাণ্ড ঘটিয়েছে- এমন দাবি করছেন তারা।
বুধবার (১৭ আগস্ট) রাতে গ্রেফতার নাহিদুল ইসলাম সায়েম হত্যাকাণ্ডের দায় স্বীকার করে আদালতে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন।

পুলিশ বলছে, সায়েমের দেয়া তথ্য অনুযায়ী অপর দুই প্রেমিককে ধরতে অভিযান অব্যাহত রয়েছে। সানজিদা আক্তার ইভা কাউনিয়া উপজেলার কুর্শার গড়াই গ্রামের সৌদি প্রবাসী ইব্রাহীম মিয়ার মেয়ে। পাশের পীরগাছা উপজেলার বড়দরগাহ উচ্চ বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণিতে পড়তো সে। মঙ্গলবার (১৬ আগস্ট) প্রাইভেট পড়ার কথা বলে বাড়ি থেকে বের হয়ে আর না ফেরায় পরিবারের সদস্যরা তার খোঁজ করতে থাকে।
এদিকে ওইদিন রাতে উপজেলার হরিচরণ লস্করপাড়া এলাকায় এক কিশোরীকে রক্তাক্ত অবস্থায় রাস্তার ধারে পড়ে থাকার খবর পায় পুলিশ। এরপর সেখান থেকে তাকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিলে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন। পরে লাশটি সানজিদার বলে শনাক্ত করে তার পরিবার। তার শরীরে ছুরিকাঘাতের ১৮টি চিহ্ন রয়েছে। ময়নাতদন্তের জন্য ওই রাতেই মরদেহ মর্গে পাঠায় পুলিশ।

পুলিশ বলছে, মরদেহের সঙ্গে থাকা একটি ব্যাগে পাওয়া খাতার লেখার সূত্র ধরে নগরীর মাহিগঞ্জ থানার তালুক উপাশু গ্রামের নূর হোসেনের ছেলে নাহিদুলকে গ্রেফতার করা হয়। ব্যাপক জিজ্ঞাসাবাদের পর নাহিদুল এ হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করে।জবানবন্দিতে নাহিদুল জানান, বছর তিনেক আগে সানজিদার সঙ্গে পরিচয়ের পর তাদের দুজনের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। তখন থেকে তাদের গভীর প্রেম চললেও কিছুদিন আগে সানজিদার একাধিক প্রেমের ঘটনা জানতে পেরে তাদের সম্পর্ক ছিন্ন হয়। প্রতিশোধ নিতে পূর্বপরিকল্পনা অনুযায়ী মঙ্গলবার (১৬ আগস্ট) দুপুরে নগরীর শাপলা হলে তারা একসঙ্গে সিনেমা দেখে বিকেলে পীরগাছার একটি পার্কে ঘোরাঘুরি করে। এরপর সন্ধ্যায় ফিরে আসার পথে সানজিদার অপর দুই প্রেমিকসহ ঘটনাস্থলে একত্রিত হয়ে তিনজন মিলে ধারালো অস্ত্র দিয়ে উপর্যুপরি আঘাত করে সটকে পড়ে।

এদিকে সানজিদার বাবা ইব্রাহিম খানের দায়ের করা মামলায় নাহিদুলকে বৃহস্পতিবার (১৮ আগস্ট) জেলহাজতে পাঠানোর আদেশ দিয়েছেন আদালত।

Facebook Comments Box


এ জাতীয় আরো সংবাদ

Recent Comments

No comments to show.